প্রযুক্তিকে আলিঙ্গন করুন, এটিকে ভয় পাবেন না কেন – তার 3 টি কারণ দেওয়া আছে?

ডিজিটাল জগতে প্যারেন্টিং একটি চ্যালেঞ্জ| কিন্তু পিতা-মাতা হিসাবে, আপনি যদি প্রযুক্তিকে আলিঙ্গন করেন এবং এটিকে ভয় না পান তাহলে আপনার সন্তানের উপরে এটির একটি ইতিবাচক প্রভাব পরবে| আপনি আপনার সন্তানের ডিজিটাল যাত্রা নিরাপদ করার জন্য ডিজিটাল সরঞ্জাম ব্যবহার করতে পারেন| প্রযুক্তি কয়েকটি উপায়ের মাধ্যমে জ্ঞানময় হতে পারে|

 

  1. কৌতুহল উদ্দীপিত করা

 

প্রযুক্তি অসীম কৌতুহল কে উদ্দীপিত করে| এটি আপনার সন্তানকে কোনো বিষয় সম্পর্কে তাদের সহপাঠী বা শিক্ষক/শিক্ষিকার সাথে – চ্যাট বা অনলাইন ফোরাম-এর মাধ্যমে তাদের কৌতুহল শেয়ার করতে দেয়| আপনার ছেলে/মেয়েদের যে বিষয়গুলি মুগ্ধ করে সেগুলি সম্পর্কে আরো জানার জন্য তাদেরকে উৎসাহিত করুন – যদিও সেটি রোবট কিভাবে তৈরি হয় সেই সম্পর্কে থাকে বা অরিগামির উৎস সম্পর্কে শেখা হয়| এই কৌতুহলটির কারণে আপনার সন্তানকে বিভিন্ন আসক্তি বিকশিত করার জন্য বা আকর্ষনীয় ক্যারিয়ার পথ বেছে নেওয়া-র জন্য প্ররোচিত করে|

 

  1. অগ্রগতি ট্র্যাক করা

 

প্রযুক্তি পিতা-মাতা এবং শিক্ষক/শিক্ষিকা-র মধ্যে আরো বেশি সামঞ্জস্যপূর্ণ কথোপকথন কে সক্ষম বানিয়েছে| সন্তানের অগ্রগতি ট্র্যাক করে আপনি যে ক্ষেত্রে অতিরিক্ত কাজ করা আবশ্যক সেটি শনাক্ত করতে সাহায্য পাবেন| আপনি তারপর তাদের শিক্ষকের সাথে সেই ক্ষেত্রিগুলিতে কাজ করতে সক্ষম হবেন এবং আপনার সন্তানের সম্পূর্ণ ক্ষমতা আনলক করতে পারবেন|

 

  1. খোলাখোলি কথোপকথন

 

প্রযুক্তির বুনিয়াদ এবং অবিচলিত ক্রমবিকাশ সম্পর্কে কথোপকথন সুনিশ্চিত করবে যে আপনার সন্তান কেবল সুরক্ষিত অনুভব করে না, বরং প্রযুক্তি থেকে সর্বশ্রেষ্ঠ প্রাপ্ত করা সম্পর্কে ও আত্মবিশ্বাসী হয়| সমর্থন এবং স্বাধীনতা-র মধ্যে ভারসাম্য তৈরি করাই হল মুখ্য বিষয়|

 

ডিজিটাল প্যারেন্টিং সম্পর্কিত আরো তথ্যের জন্য আমাদের ওয়েবিনার দেখুন - https://www.dellaarambh.com/webinars/