পিসি আজ শিক্ষার একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ

 

পারমিন্দার শর্মা একজন লেখক, ব্লগার এবং ব্যাঙ্কার এবং ঈশ্বরের আশির্বাদে তার দুটি সুন্দর সন্তান|

1) “শিক্ষার জন্য পিসি” সম্পর্কে আপনার মতামত কি?

শিক্ষায় পিসির যোগদান কে অবহেলা করা যেতে পারে না| এটি শুধু ছেলেমেয়েদের জন্য সৃজনশীলতার পথ উন্মোচন করে না বরং তাদেরকে ডিজিটেকের খুঁটি-নাটি জানতে সাহায্য করে|

এটি পিসির মাধ্যমে অ্যাসাইনমেন্ট করা অথবা স্মার্ট ক্লাস অথবা হোমওয়ার্ক অ্যাপস যাই হোক না কেন, তবুও পিসি আজকের দিনে শিক্ষার অভিন্ন অংশ এবং শুধুমাত্র অধ্যয়ন-সম্পর্কিত বিষয় নয়|

2) একজন অভিভাবক হিসাবে, আপনার সন্তান ভবিষ্যতের জন্য তৈরি সেটি সুনিশ্চিত করার জন্য আপনি কি করতে পারেন?

অভিভাবকরা সন্তানের সমস্ত মৌলিক চাহিদা পূরণ করার জন্য দায়বদ্ধ কিন্তু তাদের প্রধান দায়িত্ব হল সন্তানকে জগত এবং এটির সমস্যার মুখোমুখি হওয়ার জন্য তৈরি করা| আজ সন্তানকে ভবিষ্যতের জন্য তৈরি বানানোর জন্য প্রযুক্তির বিশাল ভুমিকা রয়েছে, তাই তাকে প্রযুক্তির পর্যাপ্ত ব্যবহার করতে দেওয়া অত্যাবশ্যক|

“যখন আমরা গ্যাজেটের নেশা থেকে বাচ্চাদের মুক্ত করার কথা বলি, তখন আমাদের সেটি ভোলা উচিত নয় যে এটি প্রযুক্তি থেকে মুক্ত হওয়া সম্পর্কে নয় বরং প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহারের সম্পর্কে বলা হয়|”

জগতের চারিদিকে যা ঘটছে সেটির সম্পর্কে শিশু যত অবগত থাকবে সেটি তার পড়াশুনার জন্য ততটাই ভালো|

3) আপনি অনলাইনে কিভাবে আপনার ছোট বাচ্চাকে সুরক্ষিত রাখতে পারেন?

সাইবার জগৎ বাস্তব জগতের মতই, যাতে নানাবিধ বিপদ রয়েছে কিন্তু বেশি ভয়াবহ কারণ হল বিপদগুলো চোখে দেখা যায় না| ছেলেমেয়েদের এই জগতের সাথে পরিচিত করানো যতটা গুরুত্বপূর্ণ, একইভাবে তাদের সুরক্ষিত রাখা ও গুরুত্বপূর্ণ|

“যখন আমরা আমাদের সন্তানকে রাস্তা পার হওয়া শেখাই এটি তারই অনুরূপ| আমরা তাকে সমস্ত ট্রাফিক নিয়ম শেখাই, তাকে তার সুরক্ষিত অঞ্চল জেব্রা ক্রসিং, ফুটপাথ ইত্যাদির সম্পর্কে বলি এবং যখন সে সেগুলোর অনুকরণ করে তখন তাকে প্রোৎসাহিত করি|”

আমাদের ছেলেমেয়েদের সাইবার অধিকার সম্পর্কে সচেতন করার জন্য তাদের সাইবারক্রাইমের কাহিনী বলা উচিত| ঝুঁকি থেকে বাঁচার জন্য, তাদের সাইবার কার্যকলাপের নিরীক্ষণ আমাদের ভালোভাবে করা উচিত এবং এরূপ করার জন্য উপযুক্ত সমাধান ইনস্টল করা উচিত |

4) শেষ করার আগে, আপনার নবীনতম বই সম্পর্কে আমাদের বলুন|

আমার নবীনতম বই – বাদঁরামি করা থেকে অভিভাবকত্ব সম্পর্ক এবং পরিবারের মূল্যগুলির ওপরে জোর দেয়| এটি নিজেকে, আপনার স্বামী/স্ত্রী, আপনার শ্বশুরবাড়ি এবং শিক্ষক কে আবশ্যক মর্যাদা দিয়ে অভিভাবকত্বের সার্বিক পদক্ষেপ| এটি আজকের অভিভাবকদের দৈনন্দিন সমস্যা যেমন অধ্যয়ন বিষয়ক সমস্যা, উৎপীড়ন, গাল দেওয়া, হাইপারএকটিভিটি, ইত্যাদির মত বিষয়গুলোর সমাধান দেওয়া আছে|